সোমবার, ১৯-আগস্ট ২০১৯, ০৪:২৫ অপরাহ্ন
  • জাতীয়
  • »
  • সৌরভের চোখ বাঁধা ছিল, গায়ে জামা ছিল না: সোহেল তাজ

সৌরভের চোখ বাঁধা ছিল, গায়ে জামা ছিল না: সোহেল তাজ

shershanews24.com

প্রকাশ : ২০ জুন, ২০১৯ ০২:২৭ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা: নিখোঁজ ভাগ্নে সৌরভকে বৃহস্পতিবার ভোরে চোখ বাঁধা অবস্থায় অপহরণকারীরা ফেলে যায় বলে জানিয়েছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ। তিনি বলেন, উদ্ধার হওয়ার সময় তার চোখ বাঁধা ছিল। গায়ে কোনো কাপড় ছিল না, শুধু পায়জামা পড়া ছিল। সে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত অবস্থায় ছিল।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ফেসবুক লাইভে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এসব তথ্য জানান। 
এর আগে, চট্টগ্রাম থেকে নিখোঁজের ১১ দিন পর বৃহস্পবিবার ভোরে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার বটতলা এলাকার জামিল অটো রাইস মিলের ভেতর সোহেল তাজের ভাগ্নে সৌরভকে উদ্ধার করে পুলিশ।
ফেসবুক লাইভে সোহেল তাজ বলেন, ‘সৌরভকে যখন পাওয়া যায় তখন তার হাত-পা বাঁধা ছিল। গায়ে কোনো জামা ছিল না, শুধু পায়জামা পরা ছিল। তার চোখ বাঁধা ছিল। ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার তাকে বাসায় নিয়ে গোসলের ব্যবস্থা করেন এবং কিছু খাবার দেন। উদ্ধারের পর সৌরভ বুঝেই উঠতে পারেনি সে কোথায় আছে।’
এর আগে, ভোর ৬টার দিকে ফেসবুক লাইভে এসে তার ভাগ্নেকে খুঁজে পাওয়ার কথা জানান সোহেল তাজ। এ সময় তিনি বলেন, ভোর ৫টা ২৭ মিনিটে তাঁর মামাতো বোন তাঁকে ফোন করেন। মামাতো বোন জানান, কিছু মানুষ একটা লোকেশন থেকে তাকে (মামাতো বোন) ফোন করেন। ওই কলে বোনকে জানানো হয়, একটা ছেলেকে খুব ছন্নছাড়া অবস্থায় কিছু মানুষ গাড়ি থেকে ফেলে দিয়েছে। পরে ওই লোকেরা ছেলেটিকে তাঁদের কর্মস্থলে নিয়ে গেছেন।
লাইভে সোহেল তাজ বলেন, এরপর তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের ডিসির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পুলিশের কাউন্টার টেররিজমের ডিসি ওই এলাকার পুলিশ সুপারের (এসপি) সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এসপি নিজে গিয়ে ইফতেখার আলম সৌরভকে ওই লোকেশন থেকে পুলিশ কাস্টডিতে নিয়ে যান। সৌরভকে পুলিশ কাস্টডি থেকে ঢাকায় আনা হচ্ছে।

সোহেল তাজ লাইভে সবাইকে ধন্যবাদ জানান। পুলিশ ও প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, ‘সৌরভকে পাওয়া গেছে। ও আমাদের কাছে ফিরে আসছে। সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে আমরা অন্তত একটা মানুষের জীবন বাঁচিয়েছি। আমরা আশা করব, এমন ঘটনা আর যেন না ঘটে। আমি আশা করব, যারা মা বাবার কাছে নেই, তারা যেন ফিরে আসে।’ তিনি সবাইকে ভালোবাসা ও শুভেচ্ছা জানান।
শীর্ষকাগজ/জে