শনিবার, ২০-জুলাই ২০১৯, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন
  • বিনোদন
  • »
  • স্ত্রীর জন্য বোনকে আনফলো করলেন সাবেক ক্রিকেটার!

স্ত্রীর জন্য বোনকে আনফলো করলেন সাবেক ক্রিকেটার!

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ১০:৩৯ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ ডেস্ক : বলিউড সুপারস্টার সালমান খান সঞ্চালিত জনপ্রিয় ও বিতর্কিত রিয়েলিটি টেলিভিশন শো ‘বিগ বস’-এর দ্বাদশ মৌসুমের দুই বোন-ভাই জুটি দীপিকা কক্কর ও শ্রীশান্তের মধ্যে সম্পর্কটা ভালো যাচ্ছে না। বোন দীপিকা এই শোতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন আর ভাই শ্রীশান্ত হয়েছেন রানারআপ।

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী দীপিকা কক্করের আচরণে হতাশ ভারতের জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার শ্রীশান্ত। পরে অবশ্য অভিনয়ে ক্যারিয়ার গড়েন তিনি। যা হোক, দীপিকার প্রতি অসন্তুষ্ট হয়ে ছবি ও ভিডিও শেয়ারের মাধ্যম ইনস্টাগ্রাম থেকে আনফলো (অনুসরণকারীর তালিকা থেকে বাদ) করেছেন সাবেক এই পেস বোলার।

কারণ হিসেবে শ্রীশান্ত বলেছেন, বোন দীপিকা তাঁর স্ত্রী ভুবনেশ্বরী কুমারীকে অসম্মান করেছেন। আর এতে প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছেন তিনি। তাই দীপিকাকে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে আনফলো করে দিয়েছেন।

এর আগে বিরাট কোহলি-আনুশকা শর্মা ও হিমাংশ কোহলি-নেহা কক্কর ইনস্টাগ্রামে একে অপরকে আনফলো করেছিলেন। যদিও সেসব ছিল প্রেম সম্পর্কীয়, আর এবার হলো পরিবারের মধ্যে।

‘বিগ বস-১২’ বিজয়ী হন দীপিকা আর রানারআপ হন শ্রীশান্ত। তবে ভক্তদের বিশ্বাস, সবচেয়ে সম্ভাবনা ছিল শ্রীশান্তের।

বিনোদন পোর্টাল ইন্ডিয়া ফোরামসকে শ্রীশান্ত বলেছেন, ‘হ্যাঁ, দীপিকাকে আনফলো করেছি। কারণ সে আমার স্ত্রীকে (ভুবনেশ্বরী কুমারী) আনফলো করেছে। এবং যে আমার স্ত্রীকে অসম্মান করবে, তাঁকে আমি সম্মান করতে পারি না। স্ত্রীই আমার শক্তি ও সাহায্যকারী। দীপিকার ভক্তরা আমার স্ত্রী ও সন্তানকে অপদস্থ করেছে, তাঁদেরকে বারণ করা উচিত ছিল তাঁর। কিন্তু সে তা করেনি।’

‘আমি যেমন ভক্তদের বলেছি, আর তাঁরা তাঁকে বিদ্রুপ করা থেকে বিরত হয়েছে। দীপিকা আমার বোনই থাকবে, কারণ আমি সম্পর্ককে শ্রদ্ধা করি, কিন্তু এসব নিয়ে তাঁর সঙ্গে কথাও বলতে চাই না। আমি এসব আপনাদের (গণমাধ্যমকর্মী) সঙ্গে শেয়ার করলাম, যাতে দীপিকাকে আনফলো করার আসল কারণটি মানুষ জানতে পারে’, যোগ করেন শ্রীশান্ত।

‘বিগ বস’ জেতার পর দীপিকাকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন শ্রীশান্ত। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে তিনি বলেছিলেন, ‘দীপিকার জন্য সত্যিই আমি খুশি। সে আমার পরিবারের একজন। ট্রফি ঘরে আসায় এটা বিশেষ ব্যাপার আমার জন্য। যদিও প্রথমে ট্রফিটি আমিই তুলেছিলাম (হেসে)। ভালো লাগছে। কোনো অভিযোগ নেই।’ সূত্র : ডিএনএ
শীর্ষকাগজ/এসএসআই